ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ● ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার  বৃহস্পতিবার ● ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১
শিরোনাম: সঞ্চয়পত্র বিক্রি বন্ধ যান্ত্রিক ত্রুটির সমাধান শিগগিরই       সংকট নেই: নিরাপদ খাদ্যই বড় চ্যালেঞ্জ       পিলখানা হত্যা দিবস আজ       রোহিঙ্গা বিষয়ক দূত নিয়োগে যুক্তরাষ্ট্রকে পরামর্শ বাংলাদেশের       সীমান্তে মিলল বিরল প্রজাতির ‘নীলগাই’       খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ আর নেই       বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবাহের লক্ষ্য দ্বিগুণ      
পিপলস লিজিংয়ের ঋণখেলাপি
তলবে না এলে প্রয়োজনে গ্রেপ্তার: হাইকোর্ট
নিজস্ব প্রতিবেদক
Published : Tuesday, 23 February, 2021 at 4:11 PM, Update: 23.02.2021 4:27:15 PM

পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যানশিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে পাঁচ লাখ টাকা বা তার বেশি টাকার ঋণখেলাপিরা তলব আদেশে হাজির না হলে প্রয়োজনে তাদের গ্রেপ্তার করে আদালতে হাজির করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট।

আজ মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের নেতৃত্বাধীন একক হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন। আদালতে ঋণখেলাপিদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট গাজী মোস্তাক আহমেদ।

এর আগে গত ২১ জানুয়ারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যানশিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে পাঁচ লাখ টাকা বা তার বেশি অর্থের ঋণখেলাপি ২৮০ ব্যক্তিকে তলব করেছিলেন হাইকোর্ট। আজ মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ও ২৫ ফেব্রুয়ারি তাদের পর্যায়ক্রমে আদালতে হাজির হয়ে ঋণ পরিশোধের বিষয়ে ব্যাখ্যা জানাতে বলা হয়েছিল।

আদালতের সে আদেশের ধারাবাহিকতায় আজ ১৪৩ জন ঋণখেলাপির হাজির হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মাত্র ৫১ জন হাজির হন। বিষয়টি  নজরে আসার পর হাইকোর্ট বলেন, আদালতের তলবে যারা আজ আসেননি, তাদের আরেকবার সুযোগ দেওয়া হবে। এরপরও তারা আদালতে হাজির না হলে প্রয়োজনে গ্রেপ্তার করে কোর্টে হাজির করা হবে।

উল্লেখ্য, নানা ধরনের অনিয়ম, দুর্নীতি ও পরিচালকদের অর্থ আত্মসাতের কারণে আমানতকারীদের অর্থ ফেরতে ব্যর্থ হওয়ায় ২০১৯ সালের ১০ জুলাই পিপলস লিজিংয়ের অবসায়ন ঘোষণা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এই অবসায়ন সংক্রান্ত এক আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত ঋণখেলাপিদের তলব করেন।

পিপলস লিজিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে অনুমোদন পায় ১৯৯৭ সালের ২৪ নভেম্বর। এরপর ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠানটি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এ প্রতিষ্ঠানে দুই হাজার কোটি টাকার আমানত ছিল। এই টাকা থেকে পিপলস লিজিং এক হাজার ১৩১ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ করে যার মধ্যে ৭৪৮ কোটি টাকা খেলাপি হয়। খেলাপি ঋণের মধ্যে ৫৭০ কোটি টাকা প্রতিষ্ঠানটির পরিচালকরা প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেন বলে অভিযোগ রয়েছে। প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা লোপাট এবং বিদেশে পাচারের অভিযোগ নিয়ে কানাডায় পালিয়ে থাকা প্রশান্ত কুমার হালদারও (পিকে হালদার) পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যানশিয়াল সার্ভিসেস এর গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন।
আজকালের খবর/এসএম



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com