ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ২৮ জানুয়ারি ২০২১ ● ১৫ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার  বৃহস্পতিবার ● ২৮ জানুয়ারি ২০২১
শিরোনাম: ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো অসুবিধাই হয়নি তাদের        এইচএসসির ফল ঘোষণা হতে পারে রোববার       চট্টগ্রামের মেয়র হচ্ছেন আওয়ামী লীগের রেজাউল       বিদায়ের আগে কাঁপিয়ে যাবে শীত       ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে চতুর্থ স্থানে মিরাজ, মোস্তাফিজ ৮ম       দেশে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু       করোনার টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধন      
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড উদ্বোধন
‘ডিজিটাল বাংলাদেশের ধারায় আমরা সোনার বাংলা গড়তে পারবো’
নিজস্ব প্রতিবেদক
Published : Thursday, 10 December, 2020 at 2:11 AM, Update: 10.12.2020 2:18:00 AM


রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের ‘সফল বাস্তবায়নের’  যে ধারা চলছে তা অব্যাহত থাকলে আমরা জাতির পিতার স্বপ্নের উন্নত সমৃদ্ধ ‘সোনার বাংলা’ হিসেবে গড়ে তুলতে পারব ।
গতকাল বুধবার দেশে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-এর সপ্তম আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মাল্টি পারপাস হলে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি ভিডিও বার্তার মাধ্যমে প্রদর্শনীর উদ্বোধন ঘোষণা করেন।
আবদুল হামিদ বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা এবং জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ২০০৮ সালে যে ‘দূরদর্শী অঙ্গীকার’ করেছিল, তার সুফল আজ মানুষ ঘরে বসে পাচ্ছে।
করোনা মহামারি আমাদের উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারাকে সাময়িকভাবে বাধাগ্রস্ত করলেও, থামিয়ে দিতে পারেনি। এর কারণ ডিজিটাল বাংলাদেশের সফল বাস্তবায়ন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, মহামারির মধ্যেও ই-কমার্সের মাধ্যমে ঘরে বসে কেনা-বেচা করা, অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম, ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে বিচারিক কার্যক্রম, টেলি মেডিসিন সেবাসহ বিভিন্ন অনলাইন সেবা এ কঠিন সময়ে জীবনযাত্রাকে ‘অনেকটাই সহজ’ করে দিয়েছে।
অফিস-আদালতে চালু করা ই-নথি ব্যবস্থা সরকারি প্রতিষ্ঠানের সেবা কার্যক্রমে গতিশীলতা বাড়িয়েছে, তাতে সরকারি সেবা কার্যক্রম চালু রাখা এবং নাগরিকের কাছে সেবা পৌঁছানোও সহজ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন রাষ্ট্রপ্রধান।
তিনি বলেন, করোনা ট্রেসার বিডি মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলো চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। এছাড়া গুজব ও অসত্য তথ্য রোধে দেশব্যাপী ‘সত্যমিথ্যা যাচাই আগে ইন্টারনেটে শেয়ার পরে’ ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা হচ্ছে, যা বর্তমান প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সময়োপযোগী বলে আমি মনে করি।
সোশালি ডিসটেন্সড, ডিজিটালি কানেকটেড’- এই প্রতিপাদ্য নিয়ে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে আজ বৃহস্পতিবার বিভিন্ন দেশের মন্ত্রীদের অংশগ্রহণে হবে মিনিস্ট্রিরিয়াল কনফেরেন্স। সেখানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।
এছাড়া সেমিনার, কনফারেন্স, প্রদর্শনী, ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড সম্মাননা ও ভার্চুয়াল কনসার্টেরও আয়োজন রয়েছে এবার।
এবারের প্রদর্শনীতে ই-গভর্নেন্স, সফটওয়্যার ও মোবাইল উদ্ভাবন, মেইড ইন বাংলাদেশ, বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং, ই-কমার্স, স্টার্টআপ বিষয়ক বিভিন্ন চিন্তা ও অর্জনগুলো গুরুত্ব পাচ্ছে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উন্নয়নে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন এবং ফ্রিল্যান্সিং খাতে নারীরা যাতে এগিয়ে যেতে পারে, সে ব্যাপারে আরো উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, তরুণ প্রজন্মকে স্বাবলম্বী করার ক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সিং এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে। বর্তমানে অন্যান্য খাতে চাকরির সুযোগ কমে এলেও ফ্রিল্যান্সিং এর কারণে অসংখ্য তরুণের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে। ফ্রিল্যান্সারের সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়। বর্তমানে দেশে সাড়ে ছয় লাখ সক্রিয় ফ্রিল্যান্সার রয়েছে।
তবে ফ্রিল্যান্সিং পেশায় পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও যাতে সমানতালে এগিয়ে যেতে পারে, সে ব্যাপারেও উদ্যোগী হতে হবে। এর পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নিয়মিত গবেষণা ও মৌলিক জ্ঞান সৃষ্টিতে আমাদের আরো মনোযোগী হতে হবে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ২০০৮ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশের ‘রোডম্যাপ’ ঘোষণার দশ বছর পর সরকার ‘আমার গ্রাম-আমার শহর, সুশাসন’ ও তারুণ্যের শক্তি’- এই তিনটি উন্নয়ন কর্মসূচি হাতে নেয়। তাতে ডিজিটাল বিপ্লবের বাস্তবায়ন আরো ‘গতিশীল’ হয়েছে।
বাংলাদেশ আজ বিশ্বব্যাপী উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। সকল ক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহারের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অভিযাত্রায় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মসূচির বাস্তবায়ন ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিতকে আরো শক্তিশালী করেছে।
উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত থাকলে রূপকল্প ২০২১ ও রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশকে জাতির পিতার স্বপ্নের উন্নত সমৃদ্ধ ‘সোনার বাংলা’ হিসেবে গড়ে তুলতে পারব বলে আমার বিশ্বাস।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ডাক, টেলি যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির বক্তব্য দেন। এনএমএস।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com