ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ৩ ডিসেম্বর ২০২০ ● ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
ই-পেপার  বৃহস্পতিবার ● ৩ ডিসেম্বর ২০২০
শিরোনাম: করোনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু       খুলনায় হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসি       শ্রেষ্ঠ অভিনেতা তারিক আনাম, অভিনেত্রী সুনেরাহ       আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে প্রাথমিক চুক্তি       আবরার হত্যা : বিচারকের প্রতি অনাস্থা আসামিপক্ষের       ভারতে আঘাত হানছে ঘূর্ণিঝড় বুরেভি       ছাত্র অধিকার পরিষদের তিন নেতা রিমান্ডে      
বিজলী মরিচের চাষে লাভবান নন্দীগ্রামের চাষিরা
নাজমুল হুদা, নন্দীগ্রাম
Published : Saturday, 21 November, 2020 at 7:48 PM

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ফসলি জমির মাটিতে উর্বরশক্তি অনেক বেশি। এ কারণে প্রায় সবধরনের ফসলের চাষাবাদ করা সম্ভব হয়। কিন্তু আগে এ উপজেলার কৃষকরা বেশিরভাগ ধানের চাষাবাদ করতো। রবিশস্য চাষাবাদে একেবারেই গুরুত্ব দিতো না। এখন আবার রবিশস্য চাষাবাদে গুরুত্ব দিয়েছে চাষিরা। বিভিন্ন ফসলের সাথে সাথে মরিচ চাষাবাদ করছে তারা। মরিচ চাষে লাভবান হচ্ছে এ এলাকার চাষিরা।

মরিচ সবচেয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য। মরিচ ছাড়া তিন বেলা খাবার রান্না করা যায় না। একারণে মরিচের যেমন ঝাল তেমন দামও বেশি। এবছর প্রতি কেজি কাঁচামরিচ ২০০ টাকায় কিনতে হয়েছে। কাঁচামরিচের এতো বেশি দাম শুনেই ক্রেতাদের হতাশ হতে হয়েছে। তবুও নিরুপায় হয়ে বেশি দামেই কিনতে হয় কাঁচামরিচ। প্রতি বছর এভাবেই কাঁচামরিচের দাম বৃদ্ধি পায়। সেকারণে মরিচ চাষিরা গুনে থাকে লাভের অংক। এবারো তাই গুনছে। এ উপজেলায় বেশিরভাগ বিজলী মরিচের চাষাবাদ করা হয়ে থাকে। উপজেলার তেঘরী মাঠের জমিতে প্রায় সবাই বিজলী মরিচ চাষাবাদ করেছে। 

তেঘরী গ্রামের কৃষক শামীম হাসান, জাকারিয়া হোসেন জিম ও রমেন উদ্দিন বলেছে, আমরা বিজলী মরিচ চাষ করে অনেক লাভবান হয়েছি। তাই এবারো বিজলী মরিচ চাষ করেছি। আগস্ট মাসের শেষের দিকে মরিচ চাষ শুরু করেছি। ছয় মাস জমি থেকে মরিচ উঠানো হবে। প্রতি বিঘা জমিতে মরিচ চাষে ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা ব্যয় হয়। ১৫ দিন পরপর প্রতি বিঘা জমি থেকে ১০/১২ মণ মরিচ উঠানো হয়। ছয় মাসে প্রায় দুই লাখ টাকার মরিচ বিক্রয় করা হয়ে থাকে। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আদনান বাবু জানান, নন্দীগ্রাম উপজেলায় মরিচ উৎপাদন অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে মরিচ চাষিরা অনেক লাভবান হবে। উপজেলার হাট-বাজারে ১৫০ টাকা কেজি দরে কাঁচামরিচ বিক্রয় হচ্ছে। যে কারণে কৃষকদের মরিচ চাষে আগ্রহ বাড়ছে। পাশাপাশি রবিশস্য’র ব্যাপক চাষাবাদ হচ্ছে।  

আজকালের খবর/এএইস


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- addajkalerkhobor[email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com