ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  শুক্রবার ● ২৮ জানুয়ারি ২০২২ ● ১৫ মাঘ ১৪২৮
ই-পেপার  শুক্রবার ● ২৮ জানুয়ারি ২০২২
শিরোনাম: রাত পোহালেই শিল্পী সমিতির নির্বাচন       লবিস্ট নিয়োগের ব্যাখ্যা বিএনপিকে দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী       ভূমি অধিগ্রহণ নিয়ে উত্থাপিত অভিযোগ ​ভিত্তিহীন : দীপু মনি       পত্রিকা খুললেই পরীমনি-খুকুমণি আর দীপু মনি       মাহবুব তালুকদারসহ ইসির প্রায় ২০ জন করোনায় আক্রান্ত       সবচেয়ে দূষিত শহর ঢাকা        ৬ মাস টি-টোয়েন্টি খেলবেন না তামিম      
মিশা সওদাগরের আচরণে বিব্রত দেওয়ান নজরুল, ক্ষোভ বিনোদন মহলে
আহমেদ তেপান্তর
Published : Friday, 3 December, 2021 at 4:56 PM

৩০ নভেম্বর এফডিসিতে সেলিম খানকে দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন দেওয়ান নজরুল। পাশের ছবিতে সম্মাননা তুলে দিতে পরিচালক ও শিল্পী সমিতির নেতৃবৃন্দকে দেখা যাচ্ছে।

৩০ নভেম্বর এফডিসিতে সেলিম খানকে দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন দেওয়ান নজরুল। পাশের ছবিতে সম্মাননা তুলে দিতে পরিচালক ও শিল্পী সমিতির নেতৃবৃন্দকে দেখা যাচ্ছে।

শত মানুষের সামনে বাংলা খলচরিত্রের অন্যতম অভিনেতা মিশা সওদাগরের আচরণে ‘দোস্ত-দুশমন’খ্যাত গুণী পরিচালক দেওয়ান নজরুল বিব্রত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনা বিনোদন মহলে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

গত ৩০ নভেম্বর এফডিসিতে পরিচালক সমিতি কর্তৃক শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খানকে দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মিশার অপ্রীতিকর আচরণের শিকার হন দেওয়ান নজরুল।

আজ ৩ ডিসেম্বর ছিলো বাংলা চলচ্চিত্রের খ্যাতিমান অ্যাকশন পরিচালক দেওয়ান নজরুলের জন্মদিন। ১৯৫০ সালের আজকের এই দিনে সিরাজগঞ্জের সম্ভ্রান্ত এক পরিবারে জন্ম দোস্ত দুশমন’খ্যাত এই পরিচালকের। মুঠোফোনে শুভেচ্ছা জানিয়ে ৩০ নভেম্বরের প্রসঙ্গটি তুলতেই কন্ঠে লজ্জার আভাস পাওয়া যায়। কারণ জানতে চাইলে বলেন- সেদিন বলতে চেয়েছিলাম অনেকেই তো বলতে চাচ্ছে চলচ্চিত্র বানাচ্ছি কিন্তু কয়টা চলচ্চিত্র হচ্ছে। অনেক দরকার নেই দর্শক আসবে এমন কিছু চলচ্চিত্র নির্মাণ করা উচিৎ যার প্রভাবে ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণের হিড়িক পড়বে। কিন্তু আমার এই কথাটি কেউ বুঝলো না।

এমন ঘটনার পর মিশা সওদাগর দুঃখ প্রকাশ করেছে কি ন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার নম্বরটি বোধহয় তার কাছে নেই। 

সিনিয়রদের প্রতিক্রিয়া
প্রসঙ্গটি নিয়ে মুঠোফোনে আলোচনা হয় সেদিন উপস্থিত এডিটর গিল্ডের সভাপতি আবু মুসা দেবুর সঙ্গে। তিনি বলেন সত্যি বলতে সিনিয়রদের সঙ্গে কিভাবে কথা বলতে হয় সেটা আমরা এখনও শিখিনি। মিশার আচরণে আমরাও বিব্রত হয়েছি। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। মনে হয় উপস্থিত না থাকলে এমন দৃশ্য দেখতে হতো না।

কথা হয় পরিচালক সমিতির ক্যাবিনেট সদস্য সাইদুর রহমান সাইদের সঙ্গে। তিনি ঘটনা শুনে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন সমিতির নেতৃবৃন্দের সামনে এ ঘটনা ঘটে কিভাবে? তারা কি জানেন না দেওয়ান নজরুলের পরিচয়? যদি সম্মান দিতে না পানে তবে আমন্ত্রণ জানালেন কেন? আর নজরুল কেন সেখানে গেলো, তার সেখানে যাওয়া ঠিক হয়নি। ভুলে গেলে চলবে না দেওয়ান নজরুল শুধু সিনিয়র নন বহুগুণে গুণান্বিত একজন পরিচালক। এই ইন্ডাস্ট্রির গৌরবের অংশ।

৩০ নভেম্বর অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিল্পী চক্রবর্তী মুঠোফোনে জানান, মিশা সওদাগরের এমন আচরণ ঠিক হয়নি। এ নিয়ে সমিতিতেও কথা উঠেছে। সোহানুর রহমান সোহানও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

কী হয়েছিলো ৩০ নভেম্বর 
সেলিম খানকে সংবর্ধনা দিতে পরিচালক সমিতি কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে কিছু বলার জন্য ডাকা হয় দেওয়ান নজরুলকে। তিনি তার বক্তৃতায় বলেন- আমরা চলচ্চিত্র বানাচ্ছি কিন্তু কয়টা চলচ্চিত্র হচ্ছে? সংখ্যার বিচারে অনেক দরকার নেই, যদি অনেক হয় সেটা ভালো। তবে দর্শক আসবে এমন কিছু চলচ্চিত্র নির্মাণ করা উচিৎ যার প্রভাবে ভালো চলচ্চিত্র নির্মাণের হিড়িক পড়বে। তার এমন বক্তব্যের মাঝে ডায়াসে অতিথির আসনে বসা মিশা সওদাগর একাধিকবার ধমকের সুরে দেওয়ান নজরুলকে এসব পরামর্শ না দিয়ে সেলিম খান সম্পর্কে বলতে নির্দেশ দেন। পরে দেওয়ান নজরুল তার বক্তব্য সংক্ষিপ্ত করে দর্শক সারিতে গিয়ে বসেন। এ সময় উপস্থিত কেউ ঘটনার প্রতিবাদ করেনি বলেও সরজমিনে উপস্থিত থেকে দেখা গেছে।

সাংবাদিকবৃন্দের নিন্দা
ওইদিনের ঘটনা প্রসঙ্গে সিনিয়র বিনোদন সাংবাদিক কামরুল হাসান দর্পন তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এটা বাজে উদাহরণ। মিশা সওদাগর নতুন কেউ না, তিনি অবশ্যই দেওয়ান নজরুল সম্পর্কে অবগত। সেদিনের ঘটনা যান শুনলাম সেটা আমাদের জন্যও বিব্রতকর। 

একই বক্তব্য মইন আব্দুল্লাহর। প্রতিক্রিয়ায় বলেন- এককথা তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। ইন্ডাস্ট্রি দেওয়ান নজরুলদের মনে রাখবে, তার অবদানকে মনে রাখবে। তার মতো গুরুত্বপূর্ণ লোকের সঙ্গে সবার সামনে এমন আচরণ রীতিমত লজ্জার। মিশা সওদাগরও কি লজ্জিত হননি এ ঘটনায়। আশা করছি ক্ষমা চাইবেন।

সত্যি বলতে সেদিনের দৃশ্যটি আমার জন্যও লজ্জার। লজ্জার কারণ সকলে দেখেছে কিন্তু কেউ তাৎক্ষণিক এ নিয়ে প্রতিবাদ করেনি। মিশা সওদাগর একজন সিনিয়র অভিনেতা তার কাছ থেকে এটা আশা করি নি। আশা করছি তিনি তার ভুল বুঝতে পারবেন- মুঠোফোনে কথাগুলো বলছিলেন বিনোদন সাংবাদিক রাহাত সাইফুল।

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতির বক্তব্য

এ ব্যাপারে পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান আজকালের খবরের কাছে বলেন, বিষয়টি যে ভালো হয়নি সে নিয়ে মিশা সওদাগরের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তিনি ‘সরি’ বলেছেন। 

দেওয়ান নজরুলের কাছে কি সরি বলেছেন কিনা জানতে চাইলে সোহান বলেন- মিশা পরেরদিন আমেরিকায় গেছেন এজন্য বোধহয় সময় পাননি।

কে এই দেওয়ান নজরুল
আজ ৩ ডিসেম্বর তার ৭২তম জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়ে বহুল প্রচারিত দৈনিক আমাদের সময় প্রতিবেদন ছেপেছে ‘ যার হাতে শুরু অ্যাকশন সিনেমা’ শিরোনামে। তাতে দেখানো হয়ছে- চলচ্চিত্রের স্বর্ণালী দিনের সিনেমা ‘দোস্ত দুশমন’, ‘মাস্তান রাজা’, ‘কালিয়া’, ‘বারুদ’। এসব সিনেমার পরিচালক দেওয়ান নজরুল। বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের পর ১৯৭৪ সালে ইবনে মিজান পরিচালিত ‘ডাকু মনসুর’, ‘দুই রাজকুমার’, ‘নিশান’, ‘এক মুঠো ভাত’, ‘জিঘাংসা’, ‘বাহাদুর’ চলচ্চিত্রে সহকারী এবং প্রধান সহকারী পরিচালক এবং গীতিকার হিসেবে কাজ করেন। ‘নিশান’ চলচ্চিত্র ছিল পরিচালক ইবনে মিজানের সাথে করা শেষ চলচ্চিত্র। এর পর তিনি ১৯৭৬ সালে শুরু করেন ‘দোস্ত দুশমন’ চলচ্চিত্র নির্মাণের কাজ। ১৯৭৭ সালে মুক্তি পায় এটি। দেওয়ান নজরুল পরিচালিত প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘দোস্ত দুশমন’। এখানে জসিম খল চরিত্রে অভিনয় করে দারুণ খ্যাতি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি অ্যাকশন হিরো হিসেবে ঢাকাই চলচ্চিত্রে স্থান করে নিয়েছিলেন। চলচ্চিত্রটি বিখ্যাত হয় এবং দেওয়ান নজরুল পরিচালক হিসেবে স্থায়ী আসন লাভ করেন। অভিনেতা রিয়াজ তার হাত ধরে ‘বাংলার নায়ক’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে পা রাখেন। দেওয়ান নজরুলের সহকারী এবং প্রধান সহকারী পরিচালকরা এখন চলচ্চিত্র বা টিভির জগতে নামকরা মুখ। তাদের মধ্যে রয়েছেন- অভিনেতা কায়েস চৌধুরী, পরিচালক রায়হান মুজিব, পরিচালক রানা নাসের এবং পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান। তার ‘জনি’ চলচ্চিত্রের প্রদর্শনের মাধ্যমে শুরু হয়েছিল যশোরের মনিহার সিনেমার যাত্রা ।

আজকালের খবর/আতে


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা বিভাগ- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.net, www.ajkalerkhobor.com