ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  সোমবার ● ৬ ডিসেম্বর ২০২১ ● ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ই-পেপার  সোমবার ● ৬ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম: তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি বিএনপির       ৫ম ধাপে সিলেট-চট্টগ্রাম বিভাগে নৌকা পেলেন যারা       কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে দুই জন নিহত       স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এখনও নানাভাবে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে       বাংলাদেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়িয়েছে : বিশ্বব্যাংক       অর্থপাচারকারী প্রিন্স মুসা, মিন্টু-তাবিথদের তালিকা হাইকোর্টে       উপকূলে শঙ্কা কাটেনি, তিন নম্বর সংকেত বহাল      
নৌ-বন্দরে ডিজিটালের ছোঁয়া
প্যাকার মেশিন ব্যবহারে ২৪ ঘণ্টায় সার পাচ্ছেন কৃষক
যশোর ও অভয়নগর প্রতিনিধি
Published : Tuesday, 16 November, 2021 at 7:00 PM

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমুদ্রবন্দর মোংলা হলেও যশোরের অভয়নগর উপজেলার নোয়াপাড়ার নৌ-বন্দর দিয়ে সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি মালামাল গন্তেব্যে পৌঁছানো হয়। ভৈরব নদের কারণে এই বন্দরে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার দিন দিন বেড়েই চলেছে। নদের বাঁক পরিবর্তন হয়েছে এবং ভাঙনের কবলে পড়ে নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে শত শত বিঘা ফসলি জমি। তবে নাব্য শ্রমিক সংকট সত্ত্বে¡ ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহার করে সারাদেশে সঠিক সময়ে মালামাল পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।


যশোরের অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়ার ওপর দিয়ে বয়ে চলেছে ভৈরব নদ। নোয়াপাড়া বাজারে সার, সিমেন্ট আর কয়লার ব্যবসার বেচাকেনা জমজমাট প্রতিদিন হাজার হাজার ট্রাক থেকে মালামাল লোড-আনলোড হয়ে থাকে। কোটি কোটি টাকা বেচাকেনা হয় এই নগরীতে। এই নদ দিয়ে প্রতিদিন শত শত জাহাজ, বার্জ কার্গো বোঝাই করে মালামাল আনা-নেওয়া করা হয়ে থাকে। নদের কিছু কিছু স্থানে বাঁক পরিবর্তন হয়েছে এবং ভাঙনের কবলে পড়ে নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে শত শত বিঘা ফসলি জমি।

 
সরকারি-বেসরকারি আমদানিকৃত সার বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করা হয়ে থাকে এই বন্দর থেকে। পরিমাণের তুলনায় লেবার সংকটের কারণে এই সরবরাহ প্রক্রিয়া সঠিকভাবে পরিচালনার অন্তরায়। বর্তমান ডিজিটাল সিস্টেম ফলো করে অল্প জায়গায় অল্প সময়ে বেশি সেবা দেওয়ার লক্ষ্যে এবং কৃষিকাজে সহযোগিতার জন্য এখানে গড়ে উঠেছে মিনি বন্দর, যেখানে স্থাপন করা হয়েছে অত্যাধুনিক প্যাকার মেশিন। এর মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা লোড-আনলোড করে সারা দেশে সঠিক সময়ে সরকারি-বেসরকারি মালামাল গন্তব্যে পৌঁছানো হচ্ছে। ফলে বন্দরে লেগেছে ডিজিটালের ছোঁয়া। একই সঙ্গে কর্মসংস্থান হয়েছে হাজার হাজার মানুষের।

 
স্থানীয় বাসিন্দরা জানান, রাস্তার উন্নয়ন এবং নদীকে ঘিরে এই বন্দরনগরী দেশের দক্ষিণাঞ্চলের সবার মনের ইচ্ছা এটিকে বাঁচিয়ে রাখা। তাই সরকারের কাছে আমাদের সবার দাবি, এই নদীর নব্যকে ধরে রাখা এবং ধারাবাহিকভাবে ড্রেজিং করা যাতে এই নদীর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকে।

 
নোয়াপাড়া সার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ শাহাজালাল হোসেন বলেন, দখলের বিষয়ে নওয়াপাড়া বন্দর কতৃপক্ষ, স্থানীয় বাসিন্দা ব্যবসায়ী সকলে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। নদীরক্ষায় বন্দর কর্তৃপক্ষকে সার্বিক সহযোগিতা করতে হবে।

ব্যাপারে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ অভয়নগর নোয়াপাড়া নদীবন্দরের দায়িত্বরত সহকারী পরিচালক মো. মাসুদ পারভেজ বলেন, বারবার ঘাট মালিকদের নোটিশ দেওয়া হয়েছে। দখল অপসারণে মন্ত্রণালয়ে বরাদ্দ চেয়ে আবেদনও করা হয়েছে। নতুন করে যারা নদী দখলের চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

তিনি আরো বলেন, ভৈরব নদী বাঁচিয়ে রাখতে অঞ্চলের মানুষের এগিয়ে আসা উচিত। ঘাট মালিকরা স্ব স্ব উদ্যোগে দখলকৃত অংশ অপসারণ না করলে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে তিনি জানান।

 
প্যাকার মেশিন ব্যবহার করে সারাদেশে মালামাল পৌঁছে দেওয়া আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান নোয়াপাড়া গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুর রহমান লিটু বলেন, নোয়াপাড়া বন্দরের মাধ্যমে সরকারি মালামালের ৭০ ভাগ সারাদেশে পৌঁছানো হয়। ইতোপূর্বে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে লোড-আনলোড থেকে শুরু করে গন্তব্যে পৌঁছানোর কাজ করা হতো। এতে অনেক বেশি সময় লাগার কারণে সঠিক সময়ে কৃষকের কাছে সার পৌঁছানো সম্ভব হতো না।

 
একদিকে কৃষক যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হতো, অন্যদিকে আমদানিকারকরাও হাজার হাজার কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হতো। এই অবস্থায় পৃথিবীর উন্নত দেশে ব্যবহরিত আধুনিক প্যাকার মেশিন ব্যবহারের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এই মেশিন ব্যবহার করে লাইটার থেকে মালামাল আনলোড করে অল্প সময়ের মধ্যে প্যাকিং হয়ে ট্রাকে লোড দেওয়া হচ্ছে। যার ফলে দ্রুত সঠিক সময়ে সরকারি মালামাল কৃষকের কাছে পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে।

 

আজকালের খবর/বিএস

 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা বিভাগ- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.net, www.ajkalerkhobor.com