ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ২৭ জুলাই ২০২১ ● ১২ শ্রাবণ ১৪২৮
ই-পেপার  মঙ্গলবার ● ২৭ জুলাই ২০২১
শিরোনাম: সব মামলায় জামিনের মেয়াদ বাড়ল আরো এক মাস       কুষ্টিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় আরো ১৯ জনের মৃত্যু       চট্টগ্রামে একদিনে মৃত্যু ও শনাক্তে নতুন রেকর্ড       অসুস্থ শ্বশুরের পাশে থাকতে আজই ফিরছেন লিটন দাস       লিবীয় উপকূলে নৌডুবি, ৫৭ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা       রামেক করোনা ওয়ার্ডে আরো ২১ জনের মৃত্যু       ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরো ১৯ জনের মৃত্যু      
চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের তীর রক্ষা ব্লক দিয়ে ঘরের মেঝে নির্মাণ
এসএম নুআস, চিলমারী (কুড়িগ্রাম)
Published : Tuesday, 20 July, 2021 at 8:31 PM

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের কাজের জন্য তৈরীকৃত ব্লক দিয়ে স্থানীয়দের ঘরের মেঝে প্লাষ্টারসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ উঠেছে। ব্লকগুলি হরিলুট হয়ে গেলেও কর্তৃপক্ষের কোনো তদারকি এবং সদ্য শেষ হওয়া প্রকল্পের জরুরি মেরামতের ব্যবস্থা না থাকায় প্রকল্পের উদ্দেশ্য ভেস্তে যেতে পারে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

জানা গেছে, কড়ালগ্রাসী ব্রহ্মপুত্র নদের হাত থেকে চিলমারীকে রক্ষার জন্য ব্রহ্মপুত্র নদের ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের কাজ তৃতীয় ধাপে বরাদ্দের মাধ্যমে চলমান রয়েছে। 

উপজেলার রমনা ইউনিয়নের জোড়গাছ এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের ডানতীর বরাবর কি.মি. ৬৭০৪০ হতে কি.মি. ৬৭৪৬০ পর্যন্ত ৬০০ মিটার নদী তীর সংরক্ষনের কুড়ি/এডিপি/চিলমারী/পি-০৩/০২ প্যাকেজের কাজ পায় চট্রগ্রামের মোহাম্মদ ইউনুছ এন্ড ব্রাদার্স প্রা.লি. নামক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। যার চুক্তিমূল্য প্রায় ৩৫ কোটি টাকা। কাজ শুরুর তারিখ ১৩.১১. ২০১৯ এবং কাজ সমাপ্তির তারিখ ৩১.০৫.২০২১। চুক্তি মোতাবেক কাজ শেষ হয়েছে গত ৩১ মে তারিখে। নিয়মানুযায়ী ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার পর জরুরি প্রয়োজনের জন্য ব্লকসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রাখতে হবে। বর্তমানে ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাইডে থাকা পানি উন্নয়ন বোর্ড উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গননাকৃত ব্লকগুলি সঠিক তদারকির অভাবে হরিলুট হয়ে যাচ্ছে। তদারকির দায়িত্বে থাকা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মচারী বিভিন্ন অজুহাতে  হরিলুট হবার কথা অস্বীকার করেন।

সরেজমিনে উপজেলার রমনা ইউনিয়নের টোন গ্রাম এলাকায় গিয়ে ব্লক হরিলুটের এ চিত্র চোখে পড়ে। আশপাশে যে যার মত ব্লক নিয়ে ঘরের দেয়াল, মেঝে বাঁধাইসহ বিভিন্ন কাজ করছে। এসময় দেখা যায় রফিকুল ইসলাম নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির ঘরের মেঝেতে ব্লক বিছিয়ে সিমেন্ট বালু দিয়ে প্লাষ্টার করছে এক রাজমিস্ত্রি। 

দায়িত্বরত উপ-সহকারী প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম জানান, ব্লুক যেই নিয়ে যাক তা প্রয়োজনের সময় উদ্ধার করে আনা হবে।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম বলেন, কেউ ব্লক নিয়ে গেলে তা খুঁজে বের করে আনা হবে। বিষয়টি আমার জানা ছিল না। খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

একে


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা বিভাগ- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.net, www.ajkalerkhobor.com