ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ১৭ জুন ২০২১ ● ৩ আষাঢ় ১৪২৮
ই-পেপার  বৃহস্পতিবার ● ১৭ জুন ২০২১
শিরোনাম: সরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের পদোন্নতি শুরু হচ্ছে       দাতার কাতারে বাংলাদেশ       পূর্ত ভবনে অস্ত্রের মহড়া: আওয়ামী লীগ নেতাদের অব্যাহতি       পরীমনির বিরুদ্ধে ভাঙচুরের অভিযোগ গুলশান অল কমিউনিটি ক্লাবের, পরিদর্শনে যাবে পুলিশ       বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে স্থায়ী ক্যাম্পাসে নিতে ব্যর্থ মন্ত্রণালয়       বাজেট পাসের পরেই এমপিওর আবেদন       চীনকে এক হাত নিলেন জি-৭ নেতারা, কোভিডের উৎসের তদন্ত দাবি      
গোপালগঞ্জে আসামি ধরতে না পেরে ছেলে ও পুত্রবধুকে মারপিট
আব্দুল্লাহ আল মামুন, গোপালগঞ্জ
Published : Saturday, 15 May, 2021 at 7:58 PM

গোপালগঞ্জে আসামি ধরতে না পেরে আসামির ছেলে ও পুত্রবধুকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেছে সদর থানার এএসআই সাইদুল। এ সময় ওই দম্পতির ৩ মাসের শিশু-সন্তানকেও ছুঁড়ে ফেলে দওিয়ার অভিযোগ উঠেছে ওই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। এমন অমানবিক দৃশ্য দেখে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী গোপালগঞ্জ থানার দুই পুলিশ-সদস্যকে আধাঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে।

শনিবার (১৫ মে) সকালে সদর উপজেলার চরমানিকদাহ গ্রামে এসব ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানায়, সকালে সাদা-পোশাকে এএসআই সাইদুল ও এসআই অজিত নামে দুই পুলিশ-সদস্য চরমানিদকাহ কাজীর বাজার এলাকার কাইয়ুম মোল্লাকে ধরতে যায়। কিন্তু টের পেয়ে কাইয়ুম কৌশলে সটকে পড়ে। এতে এএসআই সাইদুল রাগান্বিত হয়ে কাইয়ুমের ছেলে ইনছান মোল্লাকে (২৫) বাঁশ দিয়ে বেধড়ক পেটান। এ সময় ইনছানের স্ত্রী আসমা ঠেকাতে গেলে তাকেও লাথি মেরে ফেলে দিয়ে মারপিঠ করেন এবং তার কোলে থাকা শিশু-সন্তানকে ছুঁড়ে ফেলেন। এ দৃশ্য কয়েকজন মোবাইল ফোনে ধারণ করলে এএসআই সাইদুল তাদেরকে গালিগালাজ ও ভয়ভীতি দেখিয়ে মোবাইল ফোন কেড়ে নেন এবং ধারণকৃত সব দৃশ্য মুছে ফেলেন। এ সময় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে ওই পুলিশ-সদস্যদেরকে প্রায় আধাঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। একপর্যায়ে তারা মোটরসাইকেল ফেলে রেখে কৌশলে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে থানা থেকে অন্য পুলিশ গিয়ে আহত ইনসান ও তার স্ত্রী আসমাকে গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন বলে জানান কাইয়ুমের স্ত্রী নুপুর বেগম।
 
হাসপাতালে ভর্তি আহত আসমা অভিযোগ করে বলেন, গেঞ্জি ও হাফ-শার্ট পরিহিত দুইজন লোক বাড়িতে এসে পুলিশ পরিচয় দেয়। তারা আমার শ্বশুরকে ধরতে এসেছে বলে জানায়। শশুরকে না পেয়ে তারা আমার স্বামীকে বাঁশ দিয়ে পেটাতে থাকে। আমি কিছু বুঝতে না পেরে ওই পুলিশের পা জড়িয়ে ধরি। তখন তিনি আমাকে লাথি মেরে ফেলে দিয়ে আমার কোলে থাকা ৩ মাসের ছেলেকে ছুঁড়ে ফেলেন এবং আমাকেও মারপিঠ ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। আমি ওই পুলিশ সদস্যের বিচার চাই।

এব্যাপারে এএসআই সাইদুল ইসলামের সঙ্গে মোবাইল ফোনে আলাপকালে তিনি জানান, কাইয়ুম মোল্লা চুরি-মামলার আসামি। সোর্সের মাধ্যমে খবর পেয়ে তাকে ধরতে পোশাক ছাড়াই সেখানে দ্রুত গিয়েছিলাম। এখন আমি অসুস্থ, বিছনায় শুয়ে আছি বলে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন।

এদিকে এলাকাসূত্রে প্রাপ্ত ভিডিও-ফুটেজে পুলিশ-সদস্যদেরকে সাদা পোশাকে দেখা গেলেও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, চুরিসহ কয়েকটি মামলার আসামি কাইয়ুমকে ধরতে পুলিশ পোশাক পরিহিত অবস্থায়ই গিয়েছিল। আসামি ধরার সময় তার বাড়ির লোকজন বাধা দেয় এবং এএসআই সাইদুলের হাত কামড়ে দিয়ে আসামি পালিয়ে যায়। কিন্তু এজন্য ওই বাড়ির কাউকে মারপিট করা হয়েছে বা কেউ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে, এমনটা আমার জানা নেই।

একে


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : হাউস নং ৩৯ (৫ম তলা), রোড নং ১৭/এ, ব্লক: ই, বনানী, ঢাকা-১২১৩।
ফোন: +৮৮-০২-৪৮৮১১৮৩১-৪, বিজ্ঞাপন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সার্কুলেশন : ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : বার্তা- [email protected] বিজ্ঞাপন- [email protected]
দৈনিক আজকালের খবর লিমিটেডের পক্ষে গোলাম মোস্তফা কর্তৃক বাড়ি নং-৫৯, রোড নং-২৭, ব্লক-কে, বনানী, ঢাকা-১২১৩ থেকে প্রকাশিত ও সোনালী প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড (২/১/এ আরামবাগ), ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com